আফগানিস্তানের সাথে যৌথভাবে মোকাবিলা করবে রাশিয়া-চীন

0
76
আফগানিস্তানের সাথে যৌথভাবে মোকাবিলা করবে রাশিয়া-চীন

আফগানিস্তানের ‘হুমকি’ মোকাবিলায় নিজ নিজ দেশের প্রচেষ্টা বাড়ানোর ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং তার চীনা সমকক্ষ শি জিনপিং। বুধবার ক্রেমলিন এ কথা জানিয়েছে। তালেবানরা প্রায় দুই সপ্তাহ আগে কাবুল দখল করে নেয়ার পর উভয় নেতা এক ফোনালাপে এমন মনোভাব পোষণ করেন। খবর ডেইরি সাবাহ’র।

ক্রেমলিন এক বিবৃতিতে বলেছে, ফোনালাপে উভয় নেতা ‘আফগানিস্তানের ভূখণ্ড থেকে আসা সন্ত্রাসবাদ এবং মাদক পাচারের হুমকি মোকাবিলায় প্রচেষ্টা বাড়ানোর জন্য তাদের প্রস্তুত থাকার কথা প্রকাশ করেছেন।’ তারা আফগানিস্তানে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার গুরুত্ব’ এবং ‘সংলগ্ন অঞ্চলে অস্থিতিশীলতা বিস্তার রোধের’ বিষয়েও কথা বলেন।

পুতিন এবং শি ‘দ্বিপাক্ষিক যোগাযোগ জোরদার করতে সম্মত হয়েছেন’ এবং আগামী মাসে তাজিকিস্তানে অনুষ্ঠিতব্য সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার (এসসিও) ‘সর্বোচ্চ সম্ভাবনাকে কাজে লাগানোর’ কথা বলেছেন। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি মধ্য এশিয়ার দেশে মস্কোর সামরিক ঘাঁটি রয়েছে, সেগুলোর সঙ্গে আফগানিস্তান এবং চীনের সীমান্ত রয়েছে।

কাবুলের নতুন নেতৃত্বের ব্যাপারে মস্কো সতর্কভাবে আশাবাদী হলেও পুতিন আফগানিস্তান থেকে জঙ্গিরা প্রতিবেশী দেশগুলোতে শরণার্থী হিসেবে প্রবেশ করতে পারেন বলে সতর্ক করে দিয়েছেন। আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে বাইরের শক্তির জড়িত থাকারও সমালোচনা করেছেন পুতিন। তিনি বলেন, দেশটিতে সোভিয়েত ইউনিয়নের দশকব্যাপী আগ্রাসন থেকে ‘শিক্ষা পেয়েছে’ মস্কো।

তালেবানরা গত ১৫ আগস্ট তালেবানের ক্ষমতা দখল করে নেয়। এরপর চীন জানায়, তারা আফগানিস্তানের সঙ্গে ‘বন্ধুত্বপূর্ণ এবং সহযোগিতামূলক সম্পর্ক’ আরও জোরদার করতে প্রস্তত রয়েছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY