এই নিয়মগুলো মেনে চলুন শীতে ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখতে

0
213

দেখতে দেখেতে শীত চলে এসেছে। কম্বলের উষ্ণতা কিংবা হট চকোলেটের স্বাদ এ সবের জন্য কে না চায় শীতকালটা তাড়াতাড়িই আসুক। তবে এ সবের মাঝে ত্বকের যত্ন নিতে ভুললে চলবে না মোটেই৷ শুষ্ক ত্বকের সমস্যায় আমরা ভুগি অনেকেই৷ শীতকাল মানেই সেই সমস্যা আরও বেড়ে যায়৷ তাই এই সমস্যা দূর করতে হলে কিভাবে করবেন ত্বকের যত্ন? এর জন্য দরকার কিছু নিয়ম মেনে চলা।

দৈনিক রুটিনের সাথে যুক্ত করুন আপনার ত্বকের পরিচর্যা । সারাদিনের হেকটিক শিডিউলে নিজের যত্ন করার সময় নেই? না তা বললে চলবে না৷ অফিসের কাজের ফাঁকে সময় বের করুন নিজের জন্য ৷ যত্ন করুন আপনার ত্বকের৷

লক করুন শরীরের আর্দ্রতা:

শীতে তাপমাত্রা প্রায়শই একক অঙ্কে নেমে যায় এবং আর্দ্রতাও প্রায় থাকে না বললেই চলে৷ ত্বকের রুক্ষভাবও বাড়ে ৷ তাই এই আর্দ্রতাতে লক করা প্রয়েজন৷ আপনার রোজকার রুটিনে রাখতে হবে ফেসিয়াল অয়েল । আপনার প্যাকের সাথে মিশিয়ে নিন কয়েক ফোঁটা ফেসিয়াল অয়েল। এটি ত্বকের ওয়েল ব্যালেন্স ঠিক রাখতে সাহায্য করবে৷

সঠিক ক্রিম বাছাই:

বাজারে উইন্টার ক্রিমের রমরমা৷ প্রতিযোগিতায় কেউ কারও থেকে পিছিয়ে নেই ৷ তবে এই ক্রিম বা বডিলোশন কেনার আগে তার মধ্যেকার ফর্মুলাগুলো যাচাই করে নিন ভাল করে৷ এই মৌসুমে সাধারণত বেশিমাত্রায় ক্রিমি ফর্মুলার প্রয়োজন যা চলতি বাজারে বেশিরভাগ ক্রিম বা ময়শ্চারাইজারে থাকে না৷ তাই কিছু বিষয় খেয়াল রেখে এসব জিনিস কিনুন।

বেছে নিন সঠিক খাবার:

আপনার প্রতিদিনের খাবারে সঠিক পরিমাণে পানি থাকা জরুরী ৷ ক্রিম এবং ময়শ্চারাইজারের পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে পানি বা পানীয় পদার্থ, যেমন- চা, কফি, ফলের রস পান করুন ৷ এর সঙ্গে খেয়াল রাখুন আপনার ডায়েটে যেন থাকে সম মাত্রায় ফ্যাট বা চর্বিযুক্ত খাবার।

ত্বক শুষ্ক করছে স্কিনকেয়ার প্রোডাক্ট:

ফোমিং ফেস ওয়াশগুলি সাধারণত ত্বক শুষ্ক করে দেয় ৷ এটি রোধ করতে ব্যবহার করুন ফেনাহীন ফেস ক্লিনজার, যা আপনার মৃদুভাবে পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। ত্বককে বিশুদ্ধ বা ডিটক্সাইফাই করার জন্য ফেস মাস্কগুলিও ব্যবহার করা যেতে পারে। ময়শ্চারাইজিং শীট মাস্ক রাতারাতি ফিরিয়ে আনতে পারে ত্বকের আর্দ্রতা।

মৃত কোষ দূর করুন:

শীতের সময় মৃত কোষ একটি বড় সমস্যা । যা থেকে হতে পারে চুলকুনির মত সমস্যা ৷ বিশেষত আপনার হাত ,পা ও ঠোঁটে দেখা দিতে পারে এই সমস্যা ৷ এক্সফোলিয়েটিং করলে মিলতে পারে এই সমস্যা থেকে মুক্তি৷ সপ্তাহে একবার হলেও ঠোঁটে স্ক্রাব করুন৷

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY