এবার ইড্রোজেন জ্বালানি উৎপাদনে রিয়াদকে প্রস্তাব দিল মস্কো

0
31
এবার ইড্রোজেন জ্বালানি উৎপাদনে রিয়াদকে প্রস্তাব দিল মস্কো

আগামী এক দশকের মধ্যে বিশ্বের শীর্ষ হাইড্রোজেনভিত্তিক জ্বালানি উৎপাদনকারী দেশে পরিণত হতে চায় রাশিয়া। সেই লক্ষ্যেই কাজ এগিয়ে নিচ্ছে মস্কো। এবার এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে হাইড্রোজেনভিত্তিক জ্বালানি উৎপাদনে একসঙ্গে কাজ করতে রিয়াদকে প্রস্তাব দিয়েছে মস্কো।

রোববার (৩০ মে) রাশিয়ান সংবাদমাধ্যম আরটির এক খবরে বলা হয়েছে, গত মঙ্গলবার (২৫ মে) সৌদি সরকারকে এই প্রস্তাব দিয়েছেন রাশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার নোভাক।

আরটি’র ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বের হাইড্রোজেন জ্বালানির ২০ ভাগই দখল করতে চায় রাশিয়া। সেই লক্ষ্যেই কাজ এগিয়ে নিচ্ছে দেশটি। আর আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে বছরে ৩ কোটি ৩৪ লাখ টন হাইড্রোজেন জ্বালানি রপ্তানি করার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে চায় রাশিয়া।

দেশটিতে পর্যাপ্ত প্রাকৃতিক গ্যাসের মজুত রয়েছে; নবায়নযোগ্য জ্বালানির ক্ষেত্রেও এক অপার সম্ভাবনার নাম রাশিয়া। এসবের ওপর ভিত্তি করেই আগামী এক দশকের মধ্যে রাশিয়া বিশ্বের শীর্ষ হাইড্রোজেন জ্বালানি উৎপাদনকারী দেশে পরিণত হবে বলে আশা মস্কোর। সৌদি আরবেরও সবুজ ও হাইড্রোজেনভিত্তিক জ্বালানি উৎপাদন ও রপ্তানি বাড়ানোর বেশ উচ্চাশা রয়েছে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উৎপাদনকারী দেশের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সৌদি আরব আর এই তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে রাশিয়া।

মূলত: প্রাকৃতিক গ্যাসকে বিশেষ প্রক্রিয়ায় রূপান্তরের মাধ্যমে হাইড্রোজেন তৈরি করা হয়। পরে এই হাইড্রোজেন বিদ্যুৎ ও তাপ উৎপাদনে ব্যবহার করা হয়। পেট্রোলিয়াম প্রক্রিয়াজাতকরণ ও রাসায়নিক সার উৎপাদনেও ব্যাপকভাবে হাইড্রোজেন ব্যবহার করতে হয়।

গত বছর রাশিয়ার বর্ধিত জ্বালানি নীতি কৌশলে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে হাইড্রোজেনভিত্তিক জ্বালানি উৎপাদনে। ওই নীতি কৌশলে ২০২৪ সালের মধ্যে ২ লাখ টন হাইড্রোজেন রপ্তানির লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে মস্কো।

গত ডিসেম্বর নোভাক জানিয়েছিলেন, হাইড্রোজেন জ্বালানি উৎপাদনে পারস্পারিক সহযোগিতার ভিত্তিতে কার্যক্রম এগিয়ে নিতে রাশিয়ান জ্বালানিমন্ত্রী জার্মানির সঙ্গে এক দীর্ঘমেয়াদি চুক্তিতে সই করেছেন।

এর আগে, ২০১৯ সালে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি কমিশন-রোসাটম ও জাপানের অর্থ, বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রাকৃতিক সম্পদ ও জ্বালানি নিয়ে কাজ সংস্থার মধ্যে একটি পরিবহন চুক্তি সই হয়। ওই চুক্তির আওতায় রয়েছে রাশিয়া থেকে জাপানে হাইড্রোজেন সরবরাহের বিস্তারিত।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY