এলন মাস্কের নতুন পদবি ‘‘টেকনোকিং অব টেসলা’’

0
65
এলন মাস্কের নতুন পদবি ‘‘টেকনোকিং অব টেসলা’’

টেসলার প্রধান নির্বাহীর পদবি পরিবর্তন করে নিজের পদবি দিলেন টেকনোকিং অব টেসলা। তবে বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ ধনী ব্যক্তি এলন মাস্ক এখনো থাকবেন বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী হয়েই। এমনটাই জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সিকিউটিরিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্চ কমিশন।

টেসলার প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তাও পরিবর্তন করেছেন পদবি, হয়েছেন মাস্টার অক কয়েন। মূলত চলতি বছর দেড়শ’ কোটি ডলারের বিটকয়েন কেনার পর পদবি পরিবর্তন করেছেন তারা। তবে দুজনের কেউই পদবির অর্থ সম্পর্কে এখনো কিছু বলেননি।

এ ঘটনা ঘটেছে টেসলার বিনিয়োগকারী এলন মাস্ক আর তার কোম্পানিকে টুইটারে বেআইনি পোস্ট দেয়ার অভিযোগে মামলা করার পর। তার অভিযোগ, ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সঙ্গে টুইটার ব্যবহার নিয়ে মাস্ক যে সমঝোতায় এসেছিলেন, তা আর মানছেন না তিনি। মামলায় বলা হয়, মাস্কের ভুল ও বেআইনি টুইটের কারণে ক্ষতির মুখে পড়েন বিনিয়োগকারীরা।

মামলার আইনজীবী বলেন, এলন মাস্ক এক কোটি অনুসারীকে টেসলার আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে মিথ্যা বিবৃতি দিয়েছেন। গত বছরের মে মাসে এলন এক টুইটে বলেন, টেসলার শেয়ারের মূল্য খুব বেশি। তার ওই এক বিবৃতির জন্য ১ হাজার ৩০০ কোটি ডলার দর হারায় টেসলা।

এদিকে বিটকয়েনে বিনিয়োগের পর শেয়ারের দর হারায় টেসলা। এরপর শীর্ষ ধনীর অবস্থান হারান এলন মাস্ক। এর কিছুদিন পর শেয়ারবাজারে টেসলার শেয়ারের দরপতন হয়। মাস্ক হারিয়েছেন ২ হাজার ৭০০ কোটি ডলার। টেসলার স্টকটি গত সপ্তাহে কমেছে ১১.৫ শতাংশ। আর টেসলার প্রায় ১৮ শতাংশ শেয়ারের মালিক এলন মাস্ক।

বর্তমানে বিশ্বের শীর্ষ ধনী অনলাইন জায়ান্ট অ্যামাজান প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজস, তার মোট সম্পদের মূল ১৮ হাজার ১৫০ কোটি ডলার। এরপরের অবস্থানেই আছেন এলন মাস্ক। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ১৬ হাজার ৬৯০ কোটি ডলার। এলন মাস্ক বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার পাশাপাশি মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্পেস এক্সের স্বত্বাধিকারী।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY