করোনা-উপসর্গ নিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় মৃত্যু ৩৪ জন

0
71
করোনা-উপসর্গ নিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় মৃত্যু ৩৪ জন

দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যু আগের চেয়ে কিছুটা নিম্নমুখী। বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) সকাল ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পূর্ববতী ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে এবং উপসর্গে ৩৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যের ভিত্তিতে গত ২৪ ঘণ্টার করোনার চিত্র তুলে ধরা হলো:-

রাজশাহী বিভাগ

রাজশাহী: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে করোনা আক্রন্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২৫ আগস্ট) সকাল ৭টা থেকে বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) সকাল ৭টা পর্যন্ত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। এদের মধ্যে ৪ জন করোনা আক্রান্ত ছিলেন। বাকি দুইজনের একজন উপসর্গ নিয়ে এবং অন্যজন করোনা পরবর্তী জটিলতায় মারা গেছেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মৃত ৬ জনের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২ জন, নাটোরের ২ জন এবং রাজশাহীর ও নওগাঁর একজন করে রছেছেন।

এদিকে গেল ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে নতুন করোনা রোগীর সংখ্যা কমেছে। ওই সময়ে করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৪ জন। হাসপাতালটিতে করোনার জন্য নির্ধারিত ৪১৮ শয্যার বিপরীতে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১৯০ জন।

অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের দুটি পিসিআর ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৩৫৭ জনের যাদের মধ্যে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে ৬০ জনের যা ১৬ দশমিক ৮০ শতাংশ।

ময়মনসিংহ বিভাগ

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে চারজন করোনায় এবং তিনজন উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মারা যাওয়া চারজনের তিনজন ময়মনসিংহের এবং একজন জামালপুরের বাসিন্দা।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) সকালে হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. মহিউদ্দিন খান মুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

চাট্টগ্রাম বিভাগ

চাঁদপুর: চাঁদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ২ জনের মৃত্যু।

খুলনা বিভাগ
খুলনা: গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনার হাসপাতালগুলোতে করণা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দুজন। বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা সদরের মনজিলা (৬৯) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

খুলনার শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ দেবনাথ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাগেরহাটের কচুয়ার আব্দুর রহমান শেখ (৭৮) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

তবে গত ২৪ ঘণ্টায় গাজী মেডিকেল হাসপাতাল, খুলনা সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু।

রংপুর বিভাগ

দিনাজপুর: দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার উপসর্গ নিয়ে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৮২ জনে। এ সময় নতুন করে ২৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) সকালে দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুস সংবাদমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৪০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১১ দশমিক ২৫ শতাংশ। সব মিলে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ হাজার ৩৯ জনে দাঁড়িয়েছে। জেলায় সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২২০ জন।

বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত জেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৮২ জনে। জেলায় একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৩২ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৫৩৭ জন। এ সময় উপসর্গ নিয়ে দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

পঞ্চগড়: পঞ্চগড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১৯ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ সময় ৭২ জনের শরীরের নমুনা পরীক্ষা করে ১৯ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়।

এ নিয়ে জেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৪৪৯ জন। এ পর্যন্ত জেলায় ৬১জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছে ৩ হাজার ৪৪ জন।

পঞ্চগড় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে, গত ২৪ ঘণ্টায় পঞ্চগড়ে ৭২ জনের শরীরের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে আরও ১৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া ১৯ জনের মধ্যে পঞ্চগড় সদর উপজেলায় ৯ জন, তেঁতুলিয়া উপজেলায় ৪ জন, আটোয়ারী ৪ জন ও দেবীগঞ্জ উপজেলায় ২ জন।

ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে গেল ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তে দুইজনের মৃত্যু।

সিলেট বিভাগ
গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে করোনা আক্রন্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে শনাক্ত হয়েছেন ১৮১ জন। শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৫।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY