কামব্যাক করা খুব কঠিন, তবে অসম্ভব নয়’

0
45

জহুরুল ইসলাম অমি আর নাজমুল আবেদিন ফাহিমের শঙ্কাই সত্য? সাবেক টেস্ট ক্রিকেটার জহুরুল ইসলাম অমি আর নামি কোচ, ব্যাটিং পরামর্শক ও বিশ্লেষক নাজমুল আবেদিন ফাহিম দুদিন আগেই সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে সংশয় প্রকাশ করেছিলেন, প্রথম টেস্টে লঙ্কানরা যা পেরেছিল, আমরা কী তা পারবো?

মানে তারা বোঝাতে চেয়েছিলেন, প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের ৫৪১ রানের জবাবেও করুনারত্নের দল ১০৭ রানে লিড নিয়েছিল। প্রচন্ড গরমে আড়াই দিন ফিল্ডিং করা আর সাড়ে পাঁচ’শো রানের চাপ- কোনোটাই তাদের পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি।

তাদের অনুমান সত্যি হয়েছে। তাই শ্রীলঙ্কার ৪৯৪ রানের জবাবে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস শেষ হয়েছে ২৫১ রানে। তামিম, সাইফ, শান্ত, মুমিনুল, মুশফিক আর লিটন দাসরা প্রচন্ড গরমে দুইদিন ফিল্ডিং করার ক্লান্তির পর ওই রানের চাপ সহ্য করতে পারেননি। ২৪২ রানে পিছিয়ে থেকেই শেষ করেছেন প্রথম ইনিংস।

মানে ফলোঅনে পড়েছিল মুমিনুলের দল; কিন্তু লঙ্কান ক্যাপ্টেন করুনারত্নে ফলোআন না করিয়ে নিজেরাই ব্যাটিংয়ে নেমে পড়েন। দুই স্পিনার মিরাজ ও তাইজুল একটি করে উইকেট নিলে তৃতীয় দিন শেষে বোর্ডে লঙ্কানদের দ্বিতীয় ইনিংসের স্কোর ২ উইকেটে ১৭। অর্থ্যাৎ, বাংলাদেশ এখনো ২৫৯ রানে পিছিয়ে।

লঙ্কানরা কেন মুমিনুলের দলকে ফলোঅনে নামায়নি? আজ শনিবার তৃতৗীয় দিনের খেলা শেষে কাছ থেকে এ প্রশ্নের মুখোমুখি হয়ে হাবিবুল বাশার সুমন বলেন, খুব স্বাভাবিকভাবেই লঙ্কানরা ফলোঅন না করিয়ে নিজেরাই ব্যাটিংয়ে নেমেছে। কারণ দুটি। এক প্রচন্ড গরমে পরপর দুই ইনিংসে বোলিং-ফিল্ডিং করা খুব কঠিন। দ্বিতীয়ত, বাংলাদেশ ফলোঅন এড়িয়ে পরের ইনিংসে দেড়শো থেকে দু’শো রান করতে পারলেও তাদের কষ্ট হবে করতে। তাই স্বাগতিকরা কোনরকম ঝুঁকি না নিয়ে বাংলাদেশকে ফলোঅনে না ঠেলে নিজেরাই নেমেছে ব্যাটিংয়ে।

ম্যাচে বাংলাদেশ কোথায় দাড়িয়ে? পক্ষ থেকে এ প্রশ্ন ছুঁড়ে দেয়া হলে জাতীয় দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার স্বীকার করেন, ভাল অবস্থানে নেই। যে জায়গায় এখন অবস্থান টাইগারদের, সেটা মোটেও নিরাপদ নয়।

বাশারের কথা, ‘যে কোন টেস্টে প্রথম ইনিংসটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিপক্ষ যেই থাকুক আর যেমন পিচেই খেলা হোক না কেন, প্রথম ইনিংসে বড় ব্যবধানে পিছিয়ে পড়া মানেই ম্যাচেও ব্যাকফুটে চলে যাওয়া। আমি মনে করি এ ম্যাচে আমরা এরই মধ্যে অনেকটা পিছিয়ে গেছি। এতটাই পিছিয়ে গেছি যেখান থেকে সামনে আসা খুব কঠিন। বর্তমান প্রেক্ষাপটে টাইগারদের ম্যাচ বাঁচাতে কঠিন লড়াই করতে হবে ‘

মুমিনুলের দলের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ। তারা কি সে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সমর্থ হবে? হাবিবুল বাশারের ব্যাখ্যা, ‘হবে না, পারবে না- তা বলবো না। তবে এখান থেকে ম্যাচ বাঁচানো কিংবা জেতা বেশ কঠিন। সেজন্য অনেক অনেক ভাল খেলতে হবে।’

এদিকে উইকেটে বল টার্ন করছে বেশ। ২২ বছর বয়সী লঙ্কান বাঁ-হাতি স্পিনার প্রাভিন জয়াবিক্রমা টেস্ট অভিষেকে একাই বাংলাদেশের ব্যাটিং মেরুদন্ড ভেঙ্গে ৯২ রানে দখল করেছেন ৬ উইকেট।

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে কম রানে গুটিয়ে যাওয়া কী তার স্পিন ঘূর্ণিতে? উইকেট কী স্পিনারদের স্বর্গে পরিণত হয়েছে? হাবিবুল বাশার অবশ্য তা মানতে নারাজ। তার ব্যাখ্যা, ‘উইকেটে টার্ন হচ্ছে। বল ঘুরছে বেশ। তবে আনপ্লেয়েবল না। আর উইকেট এখনো তেমন ভাঙ্গেনি। কোথাও ফাটল ধরেনি। বোলারদের বোলিং বুটে ফুট মার্ক ও তার আশপাশের মাটি সরেনি তেমন। সে কারণে বাউন্সটা ঠিক আছে। বল বিপজ্জনকভাবে উঁচু-নিচু হয়নি। টার্নই হয়েছে শুধু। আমাদের দুই স্পিনার মিরাজ ও তাইজুলের বলও ঘুরেছে। এখন আমাদের স্পিনাররা যদি কাল ১০০ থেকে ১২৫ রানের মধ্যে লঙ্কানদের বেঁধে ফেলতে পারি, তাহলে সাড়ে তিনশো’র মত টার্গেট দাঁড়াবে। তখন আমাদের ব্যাটসম্যানদের সেকেন্ড ইনিংসে লড়াই হবে লঙ্কান স্পিনারদের সাথে। বাশারের শেষ কথা, কাজটা কঠিন হবে। তবে অসম্ভবনা।’

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY