চাডের প্রেসিডেন্টের মৃত্যু

0
29

৩০ বছর ক্ষমতায় থাকার পর যুদ্ধক্ষেত্র পরিদর্শনে গিয়ে মারা গিয়েছেন  চাডের প্রেসিডেন্ট। গেলো সোমবার টানা ষষ্ঠবারের মতো আফ্রিকার দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন ইদ্রিস ডেবি৷ মঙ্গলবার চাডের সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র প্রেসিডেন্টের মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন৷

দেশটির উত্তরাঞ্চলে বিদ্রোহীদের সঙ্গে যুদ্ধরত সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে আহত হন বলে জানিয়েছেন মুখপাত্র৷ ডেবির দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পার্শ্ববর্তী লিবিয়া থেকে আক্রমণ করা ‘সন্ত্রাসীরা’ একটি সীমান্ত চৌকিতে হামলা চালায়৷ মরুভূমির মধ্য দিয়ে তারা রাজধানী এনজামেনার দিকে বেশ কয়েকশ কিলোমিটার এগিয়েও যায়৷ সেনাবাহিনীর দাবি এই যুদ্ধে বিদ্রোহীরা পিছু হঠতে বাধ্য হয়েছে এবং তিন শতাধিক বিদ্রোহী মারা গেছে৷

অন্তর্বর্তীকালীন কাউন্সিলের দায়িত্ব গ্রহণ

সেনাবাহিনীর মুখপাত্র আজেম বার্মেন্দাও আগোনা টিভিতে প্রেসিডেন্টের মৃত্যু সংবাদ ঘোষণা করেন৷ চারপাশে দাঁড়িয়ে থাকা অন্য সেনা কর্মকর্তাদের তিনি অন্তর্বর্তীকালীন জাতীয় কাউন্সিল হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেন৷

এই কাউন্সিল দেড় বছর ক্ষমতায় থাকবে বলে জানানো হয়েছে৷ কাউন্সিলের প্রধান হিসেবে থাকছেন ডেবির ৩৭ বছর বয়সি ছেলে মাহামাত ইদ্রিস ডেবি ইটনো৷ স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে দেশটিতে কারফিউ ঘোষণার কথাও জানান মুখপাত্র৷

মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ

যে যুদ্ধক্ষেত্রে ডেবির মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে, সেটি প্রত্যন্ত অঞ্চল হওয়ায় এ খবর নিরপেক্ষভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি৷ তবে কিছু বিদেশি পর্যবেক্ষক কিভাবে একজন রাষ্ট্রপ্রধান এভাবে মারা যেতে পারেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন৷ তারা বলছেন, এর ফলে তার নিরাপত্তা দল নিয়েও প্রশ্ন উঠছে৷ ১৯৯০ সাল থেকে আফ্রিকার দেশ চাডের প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস ডেবি৷ আফ্রিকার সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকা ব্যক্তিদের মধ্যেও একজন তিনি৷

১১ এপ্রিলের নির্বাচনে ৭৯ শতাংশ ভোট পান ডেবি৷ সাহেল অঞ্চলে বিভিন্ন জঙ্গী গোষ্ঠির তৎপরতার বিরুদ্ধে ফরাসি নেতৃত্বাধীন অভিযানের অন্যতম শক্তি ছিলেন তিনি৷ গত আগস্টে দেশটির পশ্চিমে জিহাদিদের বিরুদ্ধে সফল অভিযান পরিচালনার পর চাডের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি ডেবিকে দেশটির প্রথম ফিল্ড মার্শাল ঘোষণা করে৷

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY