জানের বদলে জান সদকা বা মান্নত করা যাবে?

0
65
জানের বদলে জান সদকা বা মান্নত করা যাবে?

প্রশ্ন: জানের সদকা দেওয়া/দুর্ঘটনা হতে বেঁচে গেলে জানের কোরবানির মান্নত করা জায়েজ কিনা? জায়েজ হলে কীভাবে দিতে হবে?

উত্তর: জানের বদলে (হালাল পশুর) জানের দান, সদকা, কুরবানি করার মান্নত করা নিষেধ নয়। তবে এ মান্নত দ্বারা কুরবানির উপযুক্ত একটি সম্পূর্ণ জন্তু দান করা ওয়াজিব হবে।

কেননা, কোরআন মাজিদে আল্লাহতায়ালা হজরত ইবরাহীম (আ.) কর্তৃক তার পুত্র ইসমাঈলের কুরবানির পরিবর্তে পশু কুরবানি করার কথা উল্লেখ করে বলেন – ‘আমি তার পরিবর্তে দিলাম জবেহ করার জন্যে এক মহান জন্তু’। (সুরা সাফফাত, ১০৭ আয়াত)।

অনুরূপভাবে বিশিষ্ট তাবিঈ ইকরামা (রাহ.) থেকে বর্ণিত- হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) ফতওয়া দিয়েছিলেন ওই ব্যক্তির ব্যাপারে, যে নিজের ওপর নিজের জান জবেহ করা আবশ্যক করে নিয়েছে, তাকে (তার জানের পরিবর্তে দিয়াত বিধানের আলোকে) ১০০ উট জবেহ করার হুকুম করেন।

হজরত ইকরামা (রহ.) বলেন, এ ঘটনার পরে আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, যদি আমি তাকে একটি দুম্বার ব্যাপারে ফতওয়া দিতাম, তাহলে তার জন্য একটি দুম্বা জবেহ করলেই যথেষ্ট হতো। কেননা, আল্লাহতায়ালা স্বীয় কিতাবে বলেছেন– এবং আমি তার পরিবর্তে দিলাম জবেহ করার জন্যে এক মহান জন্তু (একটি দুম্বার কুরবানির নিয়ম প্রদান করলাম)। (তাফসিরে ইবন কাসীর- ১২/৪৪, মাকতাবাতু আওলাদিশ শাইখ)।

সুতরাং যে ব্যক্তি এ মান্নত করবে সে একটি গরু কিংবা এক বছর বা তার চেয়ে বেশী বয়সী একটি ছাগল বা বকরী গরীব-মিসকীনদের দান করবেন অথবা তা কোনো মাদ্রাসার লিল্লাহ বোর্ডিং-এ দান করবেন। তার জন্য এভাবেই তার মান্নত পুরা করা ওয়াজিব।

উল্লেখ্য, মান্নত শরিয়তে নিষেধ নয় বটে, তবে পছন্দনীয়ও নয়। শরিয়ত উদ্বুদ্ধ করে নফল সদকার প্রতি; মান্নতের প্রতি নয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY