টিকটক-লাইকিতে সুন্দরী খুঁজতেন রাজ

0
55
টিকটক-লাইকিতে সুন্দরী খুঁজতেন রাজ

মাদকসহ বিকৃত যৌনাচারে ব্যবহৃত অনেক সরঞ্জামসহ আটক হয়েছেন অভিনেতা-প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজ (নজরুল রাজ)। তার বিরুদ্ধে মাদক ও পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা হয়েছে। অভিযোগ আছে, তরুণীদের দিয়ে ব্ল্যাকমেইলিং ছাড়াও পর্নোগ্রাফি ভিডিও বানাতেন তিনি। মাদক মামলায় দুই দিন এবং পর্নোগ্রাফির মামলায় চার দিনের পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন রাজ।

তদন্ত-সংশ্নিষ্ট সূত্র জানায়, উঠতি অনেক মডেলকে ফাঁদে ফেলার কথা স্বীকার করেছেন রাজ। এখন পর্যন্ত দুইশোর বেশি মডেল-অভিনেত্রীর সঙ্গে তার পরিচয় হয়েছে।

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) জিজ্ঞাসাবাদে রাজ জানান, সংঘবদ্ধ একটি গ্রুপ রয়েছে তার। সোস্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে যারা টিকটক-লাইকিতে অভিনয় করেন সেখান থেকে সুন্দরীদের খুঁজে বের করাই ছিলো তাদের কাজ। এরপর তাদের কাছে নানা ধরনের প্রস্তাব নিয়ে যাওয়া হয়। কেউ ফাঁদে পা দিলে উঠতি ওই মডেল ও অভিনেত্রীদের ছবি প্রভাবশালীদের কাছে পাঠাতেন রাজ। এভাবে দীর্ঘদিন ধরে মডেল-অভিনেত্রীদের ব্যবহার করে আসছিলেন তিনি। দেশের স্বনামধন্য একটি পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে এমনটি জানা গেছে।

প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের বাড়ি গোপালগঞ্জ সদরের দুর্গাপুরে। চলচ্চিত্র ও নাটক প্রযোজনার পাশাপাশি অভিনয় করেন তিনি। ২০১৯ সালের জুলাইয়ে রাজ মাল্টিমিডিয়া নামে একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন নজরুল রাজ। সেখানেই একটি গোপন কক্ষ এবং বিশেষ বিছানার সন্ধান পেয়েছে র‍্যাব। ধারণা করা হচ্ছে, এই কক্ষটিতে পর্নোগ্রাফি তৈরি করা হতো।

কয়েক মাস আগে গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে তরুণী মুনিয়ার মরদেহ উদ্ধারের পর আলোচনায় আসেন নজরুল রাজ। ওই সময় রাজের সঙ্গে মুনিয়ার একাধিক অন্তরঙ্গ ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY