পশ্চিমবঙ্গে ফের ক্ষমতায় আসছে মমতার দল

0
47

একুশের নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে ফের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসই ক্ষমতায় আসতে চলেছে। অন্তত বুথ ফেরত জরিপে সেই চিত্রই সামনে এসেছে। অন্যদিকে গত বিধানসভার নির্বাচনের চেয়ে অনেক বেশি আসন পেতে চলেছে প্রধান বিরোধী দল বিজেপি।

করোনার আবহেই রাজ্যটির ২৯৪টি বিধানসভা আসনে মোট আট দফায় নির্বাচন হয়। প্রথম দফার ভোট গ্রহণ হয় ২৭ মার্চ, শেষ দফার ভোট নেওয়া হয় ২৯ এপ্রিল। ভোট গণনা আগামী ২ মে। কিন্তু অষ্টম দফার ভোট শেষ হওয়ার পর বিভিন্ন সংস্থার পক্ষ থেকে যে বুথ ফেরত জরিপ সামনে আসে, সেখানে এবিপি-সিভোটার জরিপ অনুযায়ী তৃতীয়বারের জন্য তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসতে চলেছে বলে ইঙ্গিত মিলেছে। তাদের জরিপে তৃণমূল পেতে পারে (ম্যাজিক ফিগার-১৪৮) ১৫২-১৬৪টি আসন, বিজেপি ১০৯-১২১ টি আসন, সংযুক্ত মোর্চা (বাম-কংগ্রেস-আইএসইফ) পেতে পারে ১৪-২৫ টি আসন।

টাইমস নাও-সিভোটার যৌথ জরিপে, তৃণমূল ১৫৮ আসনে, বিজেপি ১১৫টি এবং জোটের প্রার্থীরা ২২ আসনে জয় পেতে পারে। পোল অব পোলস’এর জরিপে তৃণমূল ১৫৫টি, বিজেপি ১২২ ও জোটের প্রার্থীরা ১৫ আসনে জয় পেতে পারে।
রিপাবলিক-সিএনএক্স যৌথ জরিপে বিজেপি ১৩৮-১৪৮টি, তৃণমূল ১২৮-১৩৮টি এবং জোট ১১-২১ টি আসন পেতে পারে।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের নির্বাচনে ২১১ আসনে জয় পেয়ে ক্ষমতায় আসে তৃণমূল কংগ্রেস। মাত্র ৩টি আসনে জয় পায় বিজেপি, বাম-কংগ্রেসের জোট ৭৬ টি আসনে জয় পায় এবং অন্যদের ঝুলিতে যায় ৪ টি আসন।

পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি কেরল (১৪০), তামিলনাড়ু (২৩৪) ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল পডুচেরিতে (৩০) আসনে গত ৬ এপ্রিল একটি মাত্র দফায় বিধানসভার ভোটগ্রহণ হয়। অসমে ১২৬ টি আসনে তিনটি দফায় (২৭ মার্চ, ১,৬ এপ্রিল) ভোট নেওয়া হয়।

অসম (১২৬): ম্যাজিক ফিগার ৬৪। মূল লড়াই হয়েছে বিজেপি-অসম গণপরিষদ-ইউনাইটেড পিপলস পার্টি লিবারেল জোট এবং কংগ্রেস-এআইইউডিএফ জোটের মধ্যে। বিভিন্ন জরিপে ইঙ্গিত যে দ্বিতীয়বারের জন্য এই রাজ্যে ক্ষমতায় আসতে চলেছে বিজেপি জোট।

ইন্ডিয়া টুডে-অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়ার জরিপে বিজেপি জোট পেতে পারে ৭৫-৮৫ টি আসন, কংগ্রেস জোট ৪০-৪৫ টি আসন, অন্যরা ১-৪ টি।

রিপাবলিক-সিএনএক্স জরিপে বিজেপি জোট পেতে পারে ৭৪-৮৪ টি আসন, কংগ্রেস জোট পেতে পারে ৪০-৫০ টি আসন।

টুডেজ চাণক্য’এর জরিপ অনুযায়ী ৭০ আসন পেতে পারে বিজেপি জোট, ৫৬ আসন পেতে কংগ্রেস জোট।

তামিলানাড়ু (২৩৪): ম্যাজিক ফিগার ১১৮। মূল লড়াই হয় ক্ষমতাসীন দল ‘অল ইন্ডিয়া আন্না মুনেত্রা কাঝাগাম’ (এআইএডিএমকে) ও বিরোধী দল ‘দ্রাবিড়া মুনেত্রা কাঝাগাম’ (ডিএমকে) এর মধ্যে।

সেখানে ইন্ডিয়া টুডে-অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়া জরিপ অনুযায়ী ডিএমকে পেতে পারে ১৭৫-১৯৫ টি আসন, এআইএডিএমকে পেতে পারে ৩৮-৫৪ টি আসন, কমল হাসানের দল এমএনকে ২টি আসন পেতে পারে।

টুডেজ চাণক্য’এর জরিপে ডিএমকে ১৬৪-১৮৬ আসনে, এআইএডিএমকে ৪৬-৬৮ টি আসনে জয় পেতে পারে বলে ইঙ্গিত মিলেছে। যদিও রিপাবলিক-সিএনএক্স জরিপে এআইএডিএমকে পেতে পারে ১৬০-১৭০টি আসন, ডিএমকে ৫৮-৬৮ টি আসন পেতে পারে বলে আভাস মিলিছে।

কেরল (১৪০): ম্যাজিক ফিগার ৭১। এই রাজ্যটিতে প্রতি পাঁচ বছর অন্তর সরকার পরিবর্তন হয়। যদিও এবারে বিভিন্ন সংস্থার জরিপে ক্ষমতাসীন জোট সিপিআইএম নেতৃত্বাধীন ‘লেফট ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট’ (এলডিএফ)-ই ক্ষমতায় আসতে চলেছে বলে খবর। অন্যদিকে বিরোধী আসনেই থাকতে হতে পারে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউডিএফ)-কে।

ইন্ডিয়া টুডে-অ্যাক্সি মাই ইন্ডিয়া’এর জরিপে এলডিএফ জোট ১০৪-১২০ টি আসন, ইউডিএফ জোট ২০-৩৬ আসন পেতে পারে।

রিপাবলিক-সিএনএক্স জরিপে দেখা গেছে এলডিএফ পেতে পারে ৭২-৮০টি আসন, ইউডিএফ জোট পেতে পারে ৫৮-৬৪ টি আসন।

পডুচেরি (৩০): ম্যাজিক ফিগার ১৬। রিপাবলিক-সিএনএক্স জরিপ অনুযায়ী বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট পেতে পারে ১৬-২০ টি আসন, কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ১১-১৩টি আসনে জয় পেতে পারে। টাইমস নাও-সিভোটার জরিপে ২১ টি আসনে জয় পেতে পারে এনডিএ জোট।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY