বিক্রি করলেন কে বিদ্যালয়ের মালামাল …?

0
94

নেত্রকোনার মদন উপজেলার বনতিয়শ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মালামাল বিক্রি করে টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এমন অভিযোগ এনে আজ বুধবার উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর জানিয়েছেন স্কুল কমিটির সভাপতি খসরু নোমান। অন্যদিকে স্কুলের প্রধান শিক্ষিকার অভিযোগ স্কুল কিমিটির সভাপতি ওই মালামাল বিক্রি করেছেন। এমনকি কিছু মালামাল স্কুল সভাপতি নিজ বাড়িতে নিয়েছেন বলে অভিযোগ তার।

স্কুল সভাপতির অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মদন উপজেলার বনতিয়শ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঘরের ছাউনির টিন, ৪টি কাঠের দরজা ও ৪০টি বেঞ্চ সরকারি নিয়ম নীতি অনুসরণ না করে বিক্রি করে টাকা আত্মসাৎ করেছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা শাহিন সুলতানা ও সহকারী শিক্ষিকা বিপুলা আক্তার।

স্থানীয়রা জানান, স্কুলের বিভিন্ন পরিত্যক্ত সরঞ্জামাদি বিশেষ করে স্কুল ভবনের ছাউনির টিন, ৪টি কাঠের দরজা, বেঞ্চ বিক্রি করেছে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক।

বনতিয়শ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা বিপুলা আক্তার জানান, সভাপতি নিজের অনিয়ম লুকাতে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে অভিযোগ করেছেন। আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ করছি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা শাহিন সুলতানা জানান, স্কুলের মালামাল বিক্রি টাকা সভাপতি খসরু নোমান স্কুলের কাজে লাগিয়েছেন। দুটি দরজা সভাপতির নিজে নিয়েছেন। তবে মালামাল বিক্রি করার সঙ্গে সহকারী শিক্ষিকা বিপুলা আক্তারের সম্পৃক্ততা নেই।

মদন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল হোসেন বলেন, স্কুলের কোনো মালামাল বিক্রি করার কোনো সুযোগ নেই। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

মদন উপজেলা চেয়ারম্যান ও শিক্ষা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা হাবিবুর রহমান মাস্টার বলেন, বনতিয়শ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মালামাল বিক্রি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY