ব্রাজিলের কোচ হবেন গার্দিওলা

0
63
ব্রাজিলের কোচ হবেন গার্দিওলা

২০২৩ সালে ক্লাব ফুটবলের কোচিং ক্যারিয়ার থেকে বিরতি নিতে চান বলে জানিয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটির পেপ গার্দিওলা। তার ইচ্ছা কোনো জাতীয় দলের ডাগআউটে দাঁড়ানো। এটাও জানিয়েছেন যে, কোপা আমেরিকা কিংবা ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ টুর্নামেন্টে খেলে এমন কোনো দলকে নির্দেশনা দেওয়ার আশা তার। তাহলে কোন দলের কোচ হবেন তিনি? সেটা কি কোনোভাবে ব্রাজিল হতে পারে? সম্ভাবনার হিসেবে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলকেও কোনোভাবে এই তালিকা থেকে বাদ দেওয়া যায় না।

২০১৬ সালে ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নিয়েছিলেন গার্দিওলা। এরপর তিনি সিটিজেনদের কোচ হিসেবে ৩টি প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা, এফএ কাপ, লিগ কাপ ও কমিউনিটি শিল্ডের ট্রফি জিতেছেন। এখন একটু বিরতিতে যেতে চান স্প্যানিশ এই কোচ। ২০২৩ সালে ম্যানসিটিতে তার কোচিংয়ের বয়স হবে প্রায় সাত বছর। তখন একটু ভিন্ন পথে হাঁটবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

ক্রীড়াবিষয়ক জনপ্রিয় সাইট ইএসপিএনের সঙ্গে গার্দিওলা বলেন, ‘আমার পরবর্তী লক্ষ্য কোনো জাতীয় দল। সাত বছর এই দলে থাকার পর একটু বিরতি টানব। বিরতির পর আমি কোনো দেশকে কোচিং করাতে চাই। সেটা খুব সম্ভবত কোপা আমেরিকা কিংবা ইউরো খেলে এমন কোনো দল হতে পারে। সেই অভিজ্ঞতাটা আমি চাই।’

গার্দিওলার এই বক্তব্য কিসের ইঙ্গিত দিচ্ছে? ব্রাজিল বা আর্জেন্টিনার কোচ হতে পারেন তিনি? বিগত কয়েক বছরে ব্রাজিল দলের সঙ্গে খুব বেশি সফলতা নেই তিতের। এক কোপা আমেরিকা বাদ দিলে কিছুই জেতেননি তিনি। অথচ ব্রাজিল স্মরণকালের সবচেয়ে শক্তিশালী দলগুলোর একটি। ২০২৩ সালের পর এই ভূমিকায় গার্দিওলাকে দেখলে খুব বেশি অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

২০১২ সালে বার্সেলোনা ছাড়ার পরও প্রায় এক বছরের জন্য বিরতিতে ছিলেন গার্দিওলা। এরপর ২০১৩ সালে তিনি বায়ার্ন মিউনিখে যোগদান করেন। সেখান থেকেই ২০১৬ সালে ম্যানচেস্টার সিটির ডাগআউটে আগমন ঘটে এই কোচের। ২০০৭ সালে বার্সেলোনার ‘বি’ দলের ডাগআউটে দাঁড়ানোর মাধ্যমে কোচ হিসেবে আত্মপ্রকাশ হয় তার। সেখান থেকে পরের বছর মূল দলে যোগ দেন তিনি।

বর্তমানে যে কয়জন কোচ রথী-মহারথীর তকমা গায়ে এঁকেছেন তাদের মধ্যে পেপ গার্দিওলা অন্যতম। ফুটবলবোদ্ধারা তাকে সেই আসনে বসিয়েছেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY