ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নিয়ে নির্দেশিকা

0
114
ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নিয়ে নির্দেশিকা

করোনার সংক্রমণের মধ্যেই নতুন আতঙ্ক ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় মিউকোরমাইকোসিস নামে চিহ্নিত এই ছত্রাক-ঘটিত রোগে ইতিমধ্যেই ভারতে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। দেশটির কয়েকটি রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছে রোগটি।

ইতোমধ্যে রোগটি বাংলাদেশেও দুইজন কোভিড রোগীর শরীরের শনাক্ত হয়েছে। দেশের স্বাস্থ্য অধিদফতর এই রোগটি নিয়ে সতর্ক বার্তা জারির কিছুদিনের মধ্যে রোগটি শনাক্ত হয়।

সম্প্রতি ভারতের স্বাস্থ্য দফতর ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নিয়ে একটি সাধারণ নির্দেশিকা জারি করেছে। তাতে রয়েছে, ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সংক্রমণ শনাক্তকরণ, কাদের ঝুঁকি বেশি এবং করণীয় সম্পর্কে প্রাথমিক তথ্য। মূলত করোনা রোগীদের ক্ষেত্রে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা সামনে আসছে। তবে করোনা রোগী ছাড়া অন্যরাও এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। শরীর দুর্বল হলে মূলত বাসা বাধে এই ছত্রাক।

নির্দেশিকা বলছে, ডায়াবেটিসের রোগী, ক্যান্সারের চিকিৎসা চলছে যাদের, স্টেরয়েড ব্যবহারকারী ও বেশি মাত্রায় কোভিড সংক্রমণ হওয়া ব্যক্তিদের ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাস রোগের উপসর্গ:

# নাক থেকে কালচে রক্তপাত বা তরল বেরোনো।
#নাক বন্ধ, চোখ খুলতে বা বন্ধ করতে সমস্যা।
# মুখ অসাড় হয়ে যাওয়া। চোয়াল নাড়াতে কষ্ট।

উপসর্গ দেখা দিলে খেয়াল রাখতে হবে যেসব বিষয়:

# দিনের আলোয় নিয়মিত মুখের ভিতর আর নাক দেখতে হবে। কোথাও কোনও কালো জমাট ছোপ পড়েছে       কি না নজর রাখতে হবে।
# দাত নড়বড় করছে কি না দেখতে হবে।

উপসর্গের পর সমস্যা হলে যা করতে হবে:

# চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।
# নিয়মিত চিকিৎসা নিতে হবে।
# চিকিৎসকের পরামর্শে ওষুধ খেতে হবে।
# নিজে সিদ্ধান্ত নিয়ে ওষুধ খাওয়া যাবে না।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY