মধ্যরাতে যুবলীগ নেতার বাড়িতে গুলি বর্ষণ!

0
88

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গভীর রাতে এক যুবলীগ নেতার বাড়িতে গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এসময় তারা অন্তত অর্ধশতাধিক গুলি ছোড়ে। এতে যুবলীগ নেতার বাবা-মাসহ তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

গুলিবিদ্ধরা হলেন- মাহাবুবুল আলম (৬০), মমতাজ বেগম (৫০) ও মো. ঈসমাইল (২৯)। গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার এওচিয়ায় ইউনিয়নের ভুত পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে, ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ আজ শুক্রবার সকালে তাহসিন আরফাত জিহান (২০) নামের একজনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এওচিয়া ইউনিয়ন পরিষেদর চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মানিক এবং বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি মো. আবু ছালেহর মধ্যে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিল। তাদের বিরোধের জের ধরে ইতিপূর্বে একাধিক বার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। গত বুধবার ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মানিকের অনুসারী আবু বক্কর, মো, তৌহিদ, মো. আরিফ, মো. মানিক (কালা মানিক) ও মো. মানিক প্রকাশ ছোট মানিকের নেতৃত্বে ১২-১৪ জনের দল ভুত পাড়ায় গিয়ে এওচিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমানকে খুঁজতে থাকে। এক পর্যায়ে মিজানুর রহমানকে না পেয়ে তার ছোট ভাই রেজাউল করিমকে মারধর ও তার দোকানের মালামাল তছনছ করে চলে আসে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যুবলীগ নেতা মিজান তার ভাইকে মারধর ও দোকানের মালামাল নষ্ট করার ঘটনায় অংশ নেওয়া নজরুল ইসলাম মানিকের অনুসারী কয়েকজনের বাড়িতে গিয়ে অভিভাবকদেরকে বকাবকি এবং দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। ফলে ক্ষুব্ধ হয়ে তারা সংঘটিত হয়ে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমানের বাড়িতে গুলি বর্ষণ করে।

সাতকানিয়া থানার এসআই তাপস চন্দ্র মিত্র জানান, যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমানের বাড়িতে গুলি বর্ষণের ঘটনায় জড়িত কিছু লোক ভোরে ইউপি সদস্য আবু তাহেরের পশ্চিম গাটিয়াডেঙ্গাস্থ বাড়িতে অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা দ্রুত পালিয়ে যায়। এসময় ধাওয়া করে পশ্চিম গাটিয়াডেঙ্গার আলী চাঁন পাড়ার আবু জাফরের পুত্র তাহসিন আরাফাত জিহানকে আটক করা হয়েছে।

এওচিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মানিক বারবার আমাকে হত্যার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এওচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মানিক জানান, মিজানের সাথে আমার কোন ধরনের দ্বন্দ্ব নেই। ঘটনার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম। কে বা কারা তার বাড়িতে গুলি করছে বলে খবর পেয়ে আমি ওসি সাহেবকে ফোন দিচ্ছিলাম। ঠিক তখনই ওসি সাহেব আমার মোবাইলে ফোন করেন। আমি উনাকে ঘটনার বিষয়ে বলেছি।

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি মো. আবু ছালেহ বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মানিকের নেতৃত্বেই যুবলীগ নেতা মিজানের বাড়িতে গুলি বর্ষণ করেছে।

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেন জানান, মূলত এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে একজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিযাধীন রয়েছে।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY