যে কারণে ১১ সেপ্টেম্বর শপথ অনুষ্ঠান বাতিল করল তালেবান

0
41
যে কারণে ১১ সেপ্টেম্বর শপথ অনুষ্ঠান বাতিল করল তালেবান

আফগানিস্তানে তালেবানের অন্তর্বর্তী সরকারের শপথ অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়েছে। কাবুল দখলের ২২ দিন পর তালেবান অন্তর্বর্তী সরকারের ঘোষণা দেয়। শপথ অনুষ্ঠানে রাশিয়া, চীন ও ইরানসহ ছয় দেশকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

১১ সেপ্টেম্বর ৯/১১-এর ২০তম বর্ষপূর্তিতে তালেবান সরকারের আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশের দিন ধার্য করা হয়েছিল। কিন্তু পশ্চিমা বিশ্বসহ বিভিন্ন মহলের চাপে এ তারিখে পরিবর্তন করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। রুশ সংবাদমাধ্যম তাশ নিউজ এ খবর জানিয়েছে।

আফগান সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি কমিশনের সদস্য ইনামুল্লা সামানগনি এক টুইটে লিখেন, ‘নতুন আফগান সরকারের সূচনা অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে। মানুষ যাতে বিভ্রান্ত না হন, সে জন্য ইসলামিক আমিরাতের নেতৃত্ব মন্ত্রিসভার একাংশ ঘোষণা করেছে। যা ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করেছে।’

এর আগে ৯/১১- এ শপথ অনুষ্ঠান ঘোষণার পর অস্বস্তিতে পড়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। ন্যাটো এবং আমেরিকার জোট কাতার সরকারের ওপর চাপ বাড়িয়েছিল বিষয়টি নিয়ে তালেবানের সঙ্গে আলোচনার জন্য।

৯/১এ সরকারের শপথ অনুষ্ঠান করলে ‘অমানবিকতা’র পরিচয় দেওয়া হবে, সে বার্তাও কাতারের মাধ্যমে পৌঁছে দিয়েছিল আমেরিকা। তার জেরেই এই সিদ্ধান্ত বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞরা।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের বিশ্ববাণিজ্য কেন্দ্রের টুইন টাওয়ারে যাত্রীবাহী বিমান নিয়ে হামলা চালায় একদল সন্ত্রাসী। ওই ঘটনায় কয়েক হাজার নিরীহ মানুষ প্রাণ হারান। এ ঘটনার জন্য মার্কিন সরকার জঙ্গিগোষ্ঠী আল কায়েদাকে দায়ী করে গোষ্ঠীর নেতা বিন লাদেনকে আমেরিকার হাতে তুলে দেওয়ার জন্য তৎকালীন তালেবান সরকারের প্রতি আহ্বান জানায়।

কিন্তু তালেবান নেতৃত্ব তখন ঘোষণা করে-তারা বিন লাদেনকে আশ্রয় দিয়েছেন বলে কিছুতেই আমেরিকার হাতে তাকে তুলে দেবেন না। এরপর ২০০১ সালের ৭ অক্টোবর আফগানিস্তানে হামলা চালিয়ে কয়েক দিনের মধ্যে দেশটি দখল করে নেয় আমেরিকা। পতন ঘটে তালেবান সরকারের। ওই ঘটনার ২০ বছর পর চলতি বছর ৩১ আগস্ট আফগানিস্তান থেকে সমূলে আমেরিকা উৎখাত হয়।

এর আগে ১৫ আগস্ট কাবুল দখলের মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এর মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ২০ বছর পর দেশটির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে তালেবান।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY