রোগীকে হয়রানি করায় চিকিৎসককে ভাসানচরে বদলি

0
38

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে এসে গত শুক্রবার (১৮ জুন) সন্ধ্যায় হয়রানির শিকার হন দেলোয়ার হোসেন (৩৪) নামে এক রোগী। তিনি তাৎক্ষণিক বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য এইচ এম ইবরাহীমকে অভিযোগ করেন।

অভিযোগ পেয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে যান এমপি ইবরাহীম। ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত চিকিৎসক ডা. আবদুল্লাহ আল মামুনকে ‘শাস্তিমূলক’ বদলির নির্দেশ দেন। এমপির নির্দেশের পর তাকে চটখিল থেকে হাতিয়ার ভাসানচরে তাৎক্ষণিক বদলি (স্ট্যান্ড রিলিজ) করা হয়।

বদলি হওয়া চিকিৎসক আব্দুল্লাহ আল মামুন চটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মেডিকেল অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ভাসানচরে বদলির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নোয়াখালী সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার। তবে সিভিল সার্জনের দাবি- অভ্যন্তরীণ সমস্যার কারণে ডা. মামুনকে তাৎক্ষণিক বদলি করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় দেলোয়ার হোসেন নামে এক রোগী হাড় ভাঙার চিকিৎসা নিতে চাটখিল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে যান। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফ্রি চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও মেডিকেল অফিসার ডা. আবদুল্লাহ আল মামুন তার কাছে চিকিৎসা ফি হিসেবে দেড় হাজার টাকা দাবি করেন। পরে রোগীর স্বজনরা এমপি এইচ এম ইবরাহীমকে ফোন করে অভিযোগ করেন।

এদিকে, এ ঘটনার পর স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগের অনিয়ম দূর করতে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো পরিদর্শনের সিদ্ধান্ত নেন এমপি এইচ এম ইবরাহীম। এ লক্ষ্যে শনিবার (১৯ জুন) পূর্ব খিলপাড়া নাহারখিল কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন করেন তিনি।

এসময় তার সঙ্গে ছিলেন চাটখিল উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর কবির, পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রমুখ।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY