লাদাখ সীমান্তে ‘অভিনব’ অস্ত্র ব্যবহার করেছে চীন

0
118
লাদাখ সীমান্তে ‘অভিনব’ অস্ত্র ব্যবহার করেছে চীন
লাদাখ সীমান্তে ‘অভিনব’ অস্ত্র ব্যবহার করেছে চীন

লাদাখ সীমান্তে চলমান অচলাবস্থায় ভারতের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ‘অপ্রচলিত ও অভিনব’ অস্ত্র ব্যবহার করে চীন। সেই সঙ্গে বিশাল সংখ্যক সেনা মোতায়েন করে দেশটির সেনাবাহিনী পিপলস লিবারেশন আর্মি।

এগুলোর মাধ্যমে তারা মূলত হিমালয় পাদদেশের অঞ্চলটির স্থিতাবস্থা উত্তপ্ত করার চেষ্টা করে। ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক পর্যালোচনা প্রতিবেদনে এমনটাই দাবি করা হয়েছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

লাদাখের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ১ জানুয়ারি বার্ষিক প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে রিপোর্টে ‘অপ্রচলিত ও অভিনব’ অস্ত্র বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি।

কয়েক মাসের রেষারেষির এক পর্যায়ে গত বছরের জুন মাসের মাঝামাঝি লাদাখের প্যানগং সো ও গালওয়ান উপত্যকায় চীনা ও ভারতীয় সেনাদের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ বেধে যায়। হাতাহাতি এই যুদ্ধে ধারালো পাথর, লোহার রড, ও পেরেক বসানো মুগুর ব্যবহার করে চীনা বাহিনী।

সম্প্রতি এক চীনা বিশেষজ্ঞ দাবি করেন, লাদাখে ‘লেজার অস্ত্র’ও ব্যবহার করেছিল চীনা বাহিনী। তবে ভারতের পক্ষ থেকে এই দাবি নাকচ করে দেয়া হয়।

মন্ত্রণালয়ের রিপোর্টের দাবি, এর ফলেই সীমান্ত সমস্যা তীব্র আকার ধারণ করে। ভারত বাধ্য হয় সীমান্তে ট্যাঙ্ক, বন্দুকধারী সেনা মোতায়েন করতে।

২০২০ সালে চীনের সঙ্গে সীমান্ত সমস্যা নিয়ে এমনই পর্যবেক্ষণ ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের। আর ও বলা হয়েছে, সামরিক শক্তি প্রয়োগ করে পূর্ব লাদাখ সীমান্তে স্থিতাবস্থা বদলানোর চেষ্টা করে চীন। তাদের উস্কানিমূলক আচরণ পরিস্থিতিকে আরও সমস্যার দিকে ঠেলে দেয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY