সীমান্তের কবুতর ঘিরে রহস্যএই রহস্য

0
54

ইতিহাসের পাতা থেকে উঠে আসা! কবুতরকে গুপ্তচর হিসেবে ব্যবহার করার রীতি সবারই জানা। ফের সামনে এলো তেমনই এক ঘটনা। ভারতের পাঞ্জাবের রোরানওয়ালা সেনাচৌকিতে একটি কবুতর ধরা পড়ে দিন তিনেক আগে। সেটির পায়ে একটি নম্বর লেখা কাগজ পাওয়া যায়। যার রহস্য এখনও বোঝা যায়নি। খবর দ্য ওয়ালের।

এরই মধ্যে কবুতরকে পাঞ্জাবের জেলখানায় কয়েদ করা হয়েছে। এমনকি তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে! ভারতীয় পুলিশ জানিয়েছে, সেনা ক্যাম্পের সামনে ডিউটি করছিলেন নীরজ কুমার নামে এক সেনা কর্মী। হঠাৎই একটি সাদা-কালো কবুতর তার কাঁধে এসে বসে। উড়ে যাওয়ার আগে তিনি সেটিকে ধরে ফেলেন।

কবুতরকে তল্লাশি করতে গিয়ে চমকে যান নীরজ। দেখেন কবুতরের সঙ্গে আটকে রয়েছে একটি সাদা কাগজ। সঙ্গে সঙ্গে নীরজ তার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান। এরপরেই কবুতরটিকে ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে খোলা হয় পায়ের কাগজটি। দেখা যায় তাতে একটি নম্বর লেখা আছে। তবে কী নম্বর, কোন উদ্দেশে লেখা ছিল সে সম্পর্কে সেনা বা পুলিশের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি।
ওই কবুতর সীমান্তের ওপার থেকে পাঠানো হয়েছিল বলেই প্রাথমিক তদন্তে মনে করছে পুলিশ। এরপরেই আইন মেনে পায়রার বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে থানায়। উল্লেখ্য, গত বছর মে মাসে জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলায় পাকিস্তান সীমান্ত থেকে এমনই একটি কবুতর ধরা পড়েছিল। সেবার সন্দেহ করা হয়েছিল, পাকিস্তান গুপ্তচরবৃত্তির জন্য এই কবুতরগুলোকে প্রশিক্ষণ দেয়।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY