হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে থাকবেন ইয়াসির

0
79
হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে থাকবেন ইয়াসির

চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৫৭ রান করে অলআউট বাংলাদেশ। দলের হয়ে সর্বোচ্চ রান প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান লিটন দাসের। ফিফটি হাঁকিয়েছে তিনি। ফিফটি হাঁকাতে পারতেন অভিষিক্ত ব্যাটার ইয়াসির আলি রাব্বিও।

কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত রিটায়ার্ড হার্ট হলে মাঠ ছাড়তে হলো তাকে। ৬ চারে ৭২ বলে ৩৬ রান করে ফেলেছিলেন ইয়াসির। চমৎকার খেলছিলেন। এ সময় শাহিন শাহ আফ্রিদির এক ডেলিভারি তার মাথায় আঘাত হানলে কনকাশন হয় ইয়াসিরের। মাঠ ছেড়ে সোজা চলে যান হাসপাতালে সিটি স্ক্যানের জন্য।

ইতোমধ্যে সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট পাওয়া গেছে। কিছুই ধরা পড়েনি তাতে। তবে ঝুঁকি নিতে চায় বোর্ডের কর্মকর্তারা। আপাতত ২৪ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে থাকবেন ইয়াসির।

বিসিবি মিডিয়া বিভাগ থেকে সংবাদ মাধ্যমকে জানানো হয়েছে, মাথার আঘাত নিয়ে হাসপাতালে স্ক্যান করতে নেয়ার পর তাতে গুরুতর কিছু ধরা পড়েনি ইয়াসির আলী রাব্বির। তবে হাসপাতালেই সতর্কতামূলকভাবে ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হবে রাব্বিকে।

প্রসঙ্গত, ম্যাচের ৩০তম ওভারের পঞ্চম বলটি শট লেন্থে করেছিলেন শাহিন। প্রচণ্ড গতির বলটিকে ডাক করে মাথার ওপর দিয়ে চলে যেতে দিয়েছিলেন ইয়াসির। কিন্তু বল প্রত্যাশা মতো এতটা উপরে উঠল না। শেষ মুহূর্তে বলের লাইন থেকে সরে যেতে পারেননি ইয়াসির। বল গিয়ে সোজা আঘাত হানে রাব্বির হেলমেটে, চোখের কোনের কাছে।

ফিজিও এসে রাব্বিকে শশ্রুষা দেন। এরপর শাহিনের ওভারের শেষ বলটিও মোকাবেলা স্পিনার নুমান আলির তার পুরো ওভারটাও খেলেন ইয়াসির।

কিন্তু মাথার যন্ত্রণায় আর টিকতে না পেরে শেষ পর্যন্ত মাঠের বাইরেই চলে যেতে বাধ্য হন ইয়াসির।

তার কনকাশন সাব হয়ে ব্যাট হাতে নামেন নুরুল হাসান সোহান।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY