সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে ধর্ষণ

0
119

লক্ষ্মীপুরে সিঁধ কেটে চুরির উদ্দেশ্যে ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে (২৫) দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে যুবলীগ নেতা সুমন মাঝিকে আটক করা হয়েছে। রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা জজ আদালত প্রাঙ্গণ থেকে তাকে আটক করা হয়।

এর আগে ভোরে সদর উপজেলার তেওয়ারীগঞ্জ গ্রামে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী গৃহবধূকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দুপুরে অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) পলাশ কান্তি নাথ ও অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার (সদর) মংনেথোয়াই মারমা হাসপাতালে গিয়ে ভুক্তভোগীর সঙ্গে কথা বলেন।

অভিযুক্ত সুমন তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ও চরমটুয়া গ্রামের মৃত মন্তাজ মাঝির ছেলে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী গৃহবধূ জানান, প্রতিবন্ধী ভাই ও ছেলেকে নিয়ে রাতে ঘরে একা ছিলেন তিনি। ঘটনার সময় সিঁধ কেটে ৫ জন ঘরে ঢোকে। একপর্যায়ে ওই ৫ জন তাকে একা পেয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে আহত অবস্থায় তাকে রেখে পালিয়ে যায়। এ সময় যুবলীগ নেতা সুমনসহ সবাইকে চিনে ফেলেন তিনি।

অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) পলাশ কান্তি নাথ বলেন, খবর পেয়ে ভোরেই সদর থানা টহল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গৃহবধূকে উদ্ধার করে। প্রধান অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। অভিযুক্ত নাজিম, মো. হোসেন, ইউছুফ ও হারুনকে আটক করতে অভিযান চলছে।

এদিকে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা সুমন মাঝির ভাই যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান মিজান বলেন, ওই গৃহবধূদের সঙ্গে আমাদের জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। এজন্য পরিকল্পিতভাবে আমার ভাইকে ফাঁসানো হচ্ছে। আমার ভাই ঘটনাটির সঙ্গে জড়িত নয়।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আনোয়ার হোসেন বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে এক নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

পলাশ কান্তি নাথ আরও বলেন, প্রধান অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY