রমজানের শুরুতেই ৩ ফিলিস্তিনিকে হত্যা ইসরাইলের

0
106
সংগৃহীত

পবিত্র রমজানের প্রথম দিনেই ৩ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করল ইসরাইল। ফিলিস্তিনের অধিকৃত পশ্চিম তীরে জেনিন শহরের কাছে শনিবার (০২ এপ্রিল) অভিযান চালিয়ে ওই তিন জনকে হত্যা করে ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনী। খবর আলজাজিরার।

ইসরাইলি পুলিশের দাবি, নিহত ফিলিস্তিনিরা সশস্ত্র ছিল এবং ভোরের দিকে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। শনিবার দেওয়া এক বিবৃতিতে আরও দাবি করা হয়, ‘এটা একটা সন্ত্রাসী দল, যারা সম্প্রতি নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিল। তারা আরেকটি আক্রমণ চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিল।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, জেনিন থেকে তুলকারেমে যাওয়ার পথে ইসরাইলি সেনাদের গাড়ি আক্রমণ করে একটি দল। সেনারা আটকের চেষ্টা করলে তিন ব্যক্তি গুলি চালায়। এ সময় পাল্টা গুলি চালালে নিহত হন তারা। এ ঘটনায় চারজন ইসরাইলি সৈন্য আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। ইসলামিক জিহাদি দলের বরাতে ফিলিস্তিনি মিডিয়া জানিয়েছে, তাদের সশস্ত্র আল কুদস ব্রিগেডস শাখার তিন সদস্য ইসরাইলি বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন।

শুক্রবারও ইসরাইলি বাহিনী পশ্চিম তীরের হেবরন শহরে মসজিদে নামাজের পরে এক ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে। পবিত্র রমজান মাসের প্রথম দিনেই এই রক্তপাতের ঘটনায় এই অঞ্চলে চলমান অস্থিতিশীলতা আরও উস্কে দেবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

নিহতদের মধ্যে খলিল তাওয়ালবেহ ২৪, সাইফ আবু লিবদেহ ২৫, এবং সায়েব আবরাহ ৩০। ফিলিস্তিনের জরুরি বিভাগের কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, তিনজনের মরদেহ আটকে রাখে ইসরাইলি বাহিনী। পরিবারের কাছে হস্তান্তরে অস্বীকৃতি জানায়।

সবশেষ এই তিনজনসহ গত তিনদিনে ইসরাইলি বাহিনীর হাতে সাত ফিলিস্তিনির মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার পশ্চিম তীরে জেনিন শরণার্থী শিবিরে এক শিশুসহ তিন ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করে ইসরাইলি বাহিনী।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY