রাশিয়ার সঙ্গ না ছাড়লে সার্বিয়ার ইইউ সদস্যপদ পাওয়া কঠিন হবে

0
83
সংগৃহীত

রাশিয়ার সঙ্গে সবধরনের সম্পর্ক ছিন্ন না করলে সার্বিয়ার ইইউর সদস্যপদ পাওয়া কঠিন হবে বলে মন্তব্য করেছেন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলজ। শুক্রবার (১০ জুন) সার্বিয়া সফরে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের রাশিয়ার মায়া না ছাড়লে পূর্ব ইউরোপের দেশ সার্বিয়ার জন্য ইইউর সদস্যপদ পাওয়া কঠিন হবে বলে দেশটির প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার ভুচিচকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর। ইউক্রেন ইস্যুতে শুক্রবার সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেডে দেশটির প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে তিনি গণমাধ্যমকে এ কথা বলেন। খবর রয়টার্সের।

এসময় শলজ আরও বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার বড় একটি শর্ত হলো ঐক্যমত্যে পৌঁছানো। এ ক্ষেত্রে রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞায় সায় দেয়ার বিষয়টি তুলে ধরেন তিনি।

তিনি বলেন, আমি স্পষ্ট করে আরও একবার বলতে চাই যে আমরা ইউরোপীয় ইউনিয়ন আশা করি, ইউনিয়নে সদস্য হতে চাইলে অবশ্যই রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞায় সায় দিতে হবে। ছিন্ন করতে হবে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিকসহ সব ধরনের পারস্পরিক সহযোগিতামূলক সম্পর্ক।

এর আগে সার্বিয়ার প্রতিবেশী দেশ কসোভো ও বলকান অঞ্চলের সামগ্রিক পরিস্থিতির দেখতে কসোভোর রাজধানী প্রিস্টিনা যান চ্যান্সেলর শলজ। সফরে দেশটির প্রধানমন্ত্রী আলবিন কুর্তির সঙ্গে সাক্ষাতে ইউক্রেন ইস্যুতে ইইউর সাথে থাকার পাশাপাশি প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে শান্তি ও নিরাপত্তামূলক সম্পর্ক বজায় রাখার আহ্বান জনান শলজ। এসময়, চলতি বছরের শেষে ইউরোপীয় ইউনিয়নে কসোভোর সদস্যপদের আবেদনের বিষয়টি শলজকে বিবেচনায় রাখার আহ্বান জানান কসোভোর প্রধানমন্ত্রী।

ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর পর রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইইউর আরোপ করা বিধিনিষেধে কসোভোর সম্মতি থাকলেও রাশিয়ার উপর জ্বালানি তেল -গ্যাসসহ অর্থনৈতিকভাবে নির্ভর হয়ে পড়া সার্বিয়া তাতে সম্মতি দিতে অস্বীকৃতি জানায়। এমন পরিস্থিতিতে ২০১৪ সাল থেকে ইইউর সদস্যপদ লাভের আশায় বসে থাকা দেশটির অপেক্ষার প্রহর যে আরও লম্বা হতে যাচ্ছে তা প্রায় একরকম নিশ্চিত মনে করছে সার্বিয়ার সরকার।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY